1. rabbikhansakil@gmail.com : RAFI khan : RAFI khan
  2. riadxnxncom@gmail.com : riadxn riadxn : riadxn riadxn
সেরা ৫ টি ১৫ হাজার টাকার গেমিং মোবাইল
১৫ হাজার  টাকার গেমিং মোবাইল
সেরা ৫ টি ১৫ হাজার টাকার গেমিং মোবাইল

আসসালামু আলাইকুম বন্ধুরা আশা করি সবাই ভাল আছেন। আজ আমি আপনাদের মাঝে শেয়ার করব সেরা ৫ টি ১৫ হাজার  টাকার গেমিং মোবাইল। বর্তমানে আপনি বাজারে ১৫০০০ টাকার মধ্যে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের অনেক মোবাইল পেয়ে যাবেন। তবে আপনি যদি গেমিং মোবাইল খুজে থাকেন সে ক্ষেত্রে একটু সমস্যা হতে পারে। তাই আজকে আমি ১৫০০০ টাকা বাজেটের মধ্যে আপনাদের মাঝে সেই গেমে মোবাইল গুলোই শেয়ার করে বর্তমানে জনপ্রিয় অনলাইন ভিত্তিক গেম পাবজি ও ফ্রি ফায়ার খুব সহজে খেলা যায় সম্পূর্ণ হাই গ্রাফিক্স এর সেটিং এর মাধ্যমে। তাহলে চলুন দেরি না করে শুরু করা যাক।

সেরা ৫ টি ১৫ হাজার  টাকার গেমিং মোবাইল

বর্তমানে বাংলাদেশের পাল্লা দিয়ে প্রতিনিয়ত গেমারদের চাহিদা বৃদ্ধি পাচ্ছে। সেই সাথে বৃদ্ধি পাচ্ছে প্রতিনিয়ত নতুন নতুন গেমিং মোবাইলের চাহিদা। তবে গেমি মোবাইল বলতে আমরা মূলত ফ্লাগশিপ অথবা ২০ থেকে ২৫ হাজার টাকা বাজেটের মোবাইল গুলোকে চিনে থাকি। তবে আপনি জেনে অবাক হবেন যে ১৫ হাজার টাকা বাজেটের মধ্যে আপনি বাংলাদেশের বাজারে অনেকগুলো ভালো গেমিং মোবাইল পেয়ে যাবেন। যেগুলোতে আপনি খুব সহজে মিডিয়াম টু হাই গ্রাফিক্সের যেকোনো ধরনের গেম খেলতে পারবেন।

বর্তমানে অনেক হাই কোয়ালিটির গেম রয়েছে যেমন pubg, ফ্রী ফায়ার, কল অফ ডিউটি ইত্যাদি। এই গেমগুলো যত বেশি ভালো গ্রাফিক্স কোয়ালিটি তে আমি খেলতে পারবেন গেমগুলো খেলে আপনি তত বেশি মজা পাবেন এবং আপনার জেতার সম্ভাবনা তত বেশি থাকে। এছাড়াও এসব মোবাইলের মাধ্যমে আপনি গেমিং এর পাশাপাশি অন্যান্য সকল ধরনের কাজ যেমন ভিডিও ও অডিও এডিটিং এবং ফটো এডিটিং সহ সকল ধরনের ছোটখাট কাজ গুলো করতে পারবেন। ১৫০০০ টাকা বাজেটের গেমিং মোবাইল সম্পর্কে বিস্তারিত আরো জানতে পুরো পোস্টটি ধৈর্য সহকারে সম্পূর্ণ পড়ুন।


১৫ হাজার  টাকার গেমিং মোবাইল

আমাদের মত অনেকে আছেন যারা ভালো মানের গেমিং মোবাইল খুজে থাকেন। বাট বাজেট কম হওয়ার কারণে বা সীমিত হওয়ার কারণে মোবাইল কেমন হবে এবং কত থেকে কিনতে হবে তা জানেন না। আপনি যে শুধুমাত্র গেমিং মোবাইল খোজেন সে ক্ষেত্রে আপনাকে ৩ থেকে ৪ জিবির মধ্যে ram এবং ৩২ জিবি রম ও একটি ভাল প্রসেসরের মোবাইল হলেই চলবে। আর অবশ্যই ব্যাটারি ব্যাকআপ মোটামুটি ভালো থাকতে হবে

কেননা আপনি তিন থেকে চার ঘন্টা গেম খেলবেন এতে করে স্বাভাবিক ভাবে আপনার প্রচুর চার্জ যাবে। আর তিন গোল থেকে ৪ ঘন্টা ভালো গ্রাফিক্সের এবং ভালো কোয়ালিটির গেম খেলার পর যদি কোন মোবাইলের চার্জ একেবারে চলে যায় বা না থাকে তবে তাকে গিয়ে কখনো গেমি মোবাইল বলা যায় না

বর্তমানে আপনি অনেক কোম্পানি পাবেন যারা শুধুমাত্র গেমিং মোবাইলের দিকে ফোকাস দিয়েছে এবং তারা শুধুমাত্র গেমিং মোবাইল তৈরি করে। এই গেমিং মোবাইল তৈরি করার মূল উদ্দেশ্য মাত্র গেমারদের টার্গেট করা এবং কম বাজেটের ভিতরে ভালো মানের গেমিং মোবাইল তৈরি করা। এখন আপনাদের মাথায় প্রশ্ন আসতে পারে এত কম বাজেটের ভিতর যদি গেমিং মোবাইল কিনি তবে কি খারাপ কিছু হবে না তো অর্থাৎ টেকসই হবে তো।

আরে ভাই বর্তমানে অধিকাংশ ফোনেই এক বছরের ওয়ারেন্টি এবং এক মাস বা সাত দিনের রিপ্লেসমেন্ট গ্যারান্টি থাকে তাই এটা নিয়ে আপনার চিন্তা করতে হবে না। তারপরও বলে রাখি গেমিং মোবাইল এর ক্ষেত্রে অবশ্যই কয়েকটি দিক বিবেচনা করে তৈরি করা হয় যেমন প্রসেসর ও রেম রোম এবং ব্যাটারি। এর মূল কারণ হলো এগুলো গেম খেলার ক্ষেত্রে সব থেকে বেশি প্রয়োজনীয় বিষয় এবং এর জন্য গেমিং কোম্পানিগুলো অন্যান্য ফিচার ফোনে কমিয়ে দিয়ে এসব ফিচার বাড়িয়ে দেয়। যার কারণে ফোনের কোয়ালিটি নষ্ট হয় না কিন্তু গেমিং এর ক্ষেত্রে ভালো পারফরম্যান্স পাওয়া যায় আর বাজেটো কম হয়।

উপরে আমরা আপনাদের এই ধরনের কয়েকটি ভালো মানের ১৫ হাজার টাকা বাজেটের গেমিং মোবাইল শেয়ার করেছি। ভিডিওতে সে সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে আপনারা পুরো ভিডিওটি কষ্ট করে সম্পূর্ণ দেখুন তাহলে বিষয়টি বুঝতে পারবেন

সেরা ৫ টি ১৫ হাজার  টাকার গেমিং মোবাইল

তালিকানাম
প্রথমRealme narzo 50i
দ্বিতীয়Walton primo RX8 mini
তৃতীয়Tecno Spark 7pro
চতুর্থInfinix hot 10i
পঞ্চমXiaomi realme 9

আপনার বাজেট যদি ১৫ হাজার টাকা হয়ে থাকে তবে আপনি বাংলাদেশের যে কোন স্থান থেকে অফিসিয়ালি এই ফোনগুলো খুব সহজেই কিনতে পারবেন। তবে চেষ্টা করবেন আপনি যে ব্র্যান্ডের মোবাইল ফোনটি কিনবেন সেটির অফিসিয়াল শোরুম থেকে ফোনটি কেনার। এতে একসাথে দুটি কাজ হয়ে যাবে এক আপনি অফিশিয়ালি সেটটি ক্রয় করতে পারতেছেন এবং সেই সাথে আপনার বাড়তি কোন মূল্য দিতে হবে না। কেননা অনেক সময় দেখা যায় আপনি যদি বাইরের কোন শোরুম থেকে কোন মোবাইল কিনেন সে ক্ষেত্রে ১০০০ থেকে ৫০০ টাকা পর্যন্ত বাড়তি দিতে হয়।

এছাড়া আপনার জন্য ভালো একটি উপায় হতে পারে অনলাইন শপিং সাইট থেকে গেমিং মোবাইল ক্রয় করা। এক্ষেত্রে আপনি ডিসকাউন্ট পেতে পারেন। অনেক সময় দেখা যায় যে অনলাইন শপিং সাইটগুলো বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ফোন ও অন্য ইলেকট্রনিক পণ্যের উপর ডিসকাউন্ট দেয়। এমন কি সর্বোচ্চ দশ শতাংশ পর্যন্ত তারা ডিসকাউন্ট দিয়ে থাকে তাই আমার সাজেস্ট আপনি অনলাইন থেকে ফোনগুলো ক্রয় করার চেষ্টা করুন।


১. Realme narzo 50i

আমার মত আপনি যদি অনলাইন ভিত্তিক pubg অথবা ফ্রী ফায়ার গেম খেলতে পছন্দ করেন তাহলে আপনার জন্য Realme narzo 50i ফোনটি বেস্ট অপশন হতে পারে। এছাড়া ফোনটির বাজেট ১৫ হাজার টাকার ভিতরেই হয় আমরা এই ফোনটি আপনার জন্য রিকমেন্ডেশন করছি। কোন প্রকার সমস্যা ছাড়াই আপনি এই মোবাইলটির মাধ্যমে ফ্রি ফায়ার ও pubg হাই সেটিং এ খেলতে পারবেন। গেমটিতে আপনি হাই কোয়ালিটির গ্রাফিক্স এর খেলার দীর্ঘ সময় পরও তেমন গরম হয় না। মোটামুটি স্বাভাবিক তাপমাত্রায় থাকে এমনটাই মনে হয়েছে আমাদের কাছে। এর কারণ হলো Realme narzo 50i ফোনটিতে প্রসেসর হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে Unisoc T৬১০ প্রসেসর। ১২ মিলিমিটার সাইজের এ প্রসেসরটি অত্যন্ত শক্তিশালী এন্ড্রয়েড মোবাইল প্রসেসর।

এ প্রয়োজনের কারণে মূলত আপনি হাই সেটিং এ মোবাইল অথবা ফ্রী ফায়ার অথবা যেকোনো অনলাইন ভিত্তিক হাই কোয়ালিটির গেম খুব সহজে কোন সমস্যা ছাড়া খেলতে পারবেন। এখন যদি আমরা জনপ্রিয় এই গেমিং মোবাইলের ব্যাটারি পারফরমেন্স নিয়ে কথা বলি তবে মোবাইলটিতে ব্যবহার করা হয়েছে লিথিয়াম পলিমারের ৫০০০ এম্পিয়ার ব্যাটারী। ফলে এই ব্যাটারির মাধ্যমে আপনি আপনার গেমিং মোবাইল টিতে একটানা 4 থেকে 5 ঘন্টা কোন প্রকার সমস্যা ছাড়াই pubg অথবা ফ্রি ফায়ার গেম খেলতে পারবেন।

৫০০০ অ্যাম্পিয়ার এর বিশাল ব্যাটারি যাতে দ্রুত চার্জ আছে সেজন্য Realme narzo 50i মোবাইলটি সঙ্গে দেওয়া হয়েছে দশ ওয়াটের ফাস্ট চার্জার। আপনি যদি ফাস্ট মোবাইল চার্জারটি ব্যবহার করেন তাহলে মাত্র ২ ঘন্টা ১০ মিনিটের মোবাইলটি ফুল চার্জ হয়ে যাবে এবং আবারও গেম খেলার জন্য পুরোপুরি তৈরি হয়ে যাবে। মোবাইলটির ব্যবহার করা হয়েছে ডিসপ্লে হিসেবে ৬.৫ ইঞ্চি এল পি এস এল এস ডি। আপনি যদি এখন বাজেটের কথা চিন্তা করেন তবে সেই হিসেবে এই ডিসপ্লে আপনার জন্য যথেষ্ট ভালো। ডিজাইন ও বিল্ড কোয়ালিটিও আমার কাছে ঠিক মনে হয়েছে আশা করি ফোনটি আপনাদের কাছে যথেষ্ট ভালো লাগবে।

ফোনটির সর্বমোট দুটি ভার্সন রয়েছে এর মধ্যে ৪/৬৪ জিবি বর্তমান বাজার মূল্য ১২৪৯০ টাকা। আপনি বাজেট বাড়াতে পারলে এর থেকে আরও একটু আলাদা ভার্সন রয়েছে আপনি সেটিও কিনতে পারেন। মোবাইলটিতে ক্যামেরা হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা এবং সেইসাথে ক্যামেরার সেটআপ অনেকটা ইউজার ফ্রেন্ডলি করা হয়েছে। কোয়ালিটি মোটামুটি ভালো লেগেছে এবং ক্যামেরার সফটওয়্যার ও অ্যালগরিদম মোটামুটি চলে। ক্যামেরার অ্যালগরিদম এবং সফটওয়্যার গুলো যদি আরেকটু বেশি ভালো করা যেত তবে এটি একটি পারফেক্ট ক্যামেরা মোবাইল হিসেবে ব্যবহার করা যেত। আশা করা যায় ভবিষ্যতে সফটওয়্যার গুলো আপডেটের মাধ্যমে ক্যামেরা বৃদ্ধি করা হবে। আপনি যদি ১৫০০০ টাকা বাজেটের গেমি মোবাইলে কত চিন্তা করেন তবে সব দিক বিবেচনা এই মোবাইলটা আপনার জন্য পারফেক্ট একটি মোবাইল। শুধু তাই আপনি যদি ফোনটি অফিসিয়াল ভাবে কিনতে পারেন তবে সাথে পেয়ে যাবেন ওয়ারেন্টি।

Realme narzo 50i Full Specifications

 

Network2G, 3G, 4G
SIMDual Nano SIM
RadioUnspecified
USBv2.0
StyleMinimal Notch
MaterialGlass front, plastic body
Water Resistance(Splash-proof)
Dimensions165.2 x 76.4 x 8.9 millimeters
Weight195 grams
Display
Size6.5 inches
ResolutionHD+ 720 x 1600 pixels (270 ppi)
TechnologyIPS LCD Touchscreen
FeaturesMultitouch
Back Camera
Resolution8 Megapixel
Features
Autofocus, LED flash, f/2.0, HDR & more
Video RecordingFull HD (1080p)
Front Camera
Resolution5 Megapixel
FeaturesF/2.2, HDR & more
Video RecordingFull HD (1080p)
Battery
Type and Capacity
Lithium-polymer 5000 mAh (non-removable)
Fast Charging10W Fast Charging
Operating SystemAndroid 11 (Realme Go UI)
ChipsetUniSOC T610 (12 nm)
RAM4 GB
ProcessorOcta core, up to 1.6 GHz
GPUIMG8322
ROM64 GB (eMMC 5.1)
MicroSD SlotDedicated slot
FeaturesLoudspeaker
Sensors
Accelerometer, Gyroscope, Proximity, E-Compass
Manufactured byRealme
Made inBangladesh
Price12490 TK

 


২. Walton primo RX8 mini

তালিকার দুই নম্বরে থাকা গেমিন মোবাইলে তৈরি করছে বাংলাদেশের বিশ্বমানের প্রযুক্তি নির্মাতা কোম্পানি। ওয়ালটন বর্তমান বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় ইলেকট্রনিক পণ্য নির্মাতা কোম্পানি। আপনি যদি ১৫০০০ টাকা বাজেটের মধ্যে ভালো মানের একটি গেমিং মোবাইল কিনতে চান এবং সাথে যদি সেটা হতে হয় দেশে কোন ব্র্যান্ডের তৈরির তবে আপনার জন্য বেস্ট অপশন হতে পারে Walton primo RX8 mini। এই মোবাইলটি ওয়ালটন মূলত গেমার দের কথা বিবেচনা করে তৈরি করেছে। গেম খেলার জন্য এই মোবাইলটিতে ব্যবহার করা হয়েছে স্ন্যাপ ড্রাগন 660 এর 14 ন্যানোমিটার প্রসেসর প্রসেসরটি ছোট হলেও বেশ শক্তিশালী এবং সেইসাথে ফোনটিকে আরো শক্তিশালী করার জন্য ব্যবহার করা হয়েছে 4gb রেম। চার জিবি রেম এবং শক্তিশালী এই প্রসেসরের কারণে আপনি খুব সহজে যেকোনো হাই কোয়ালিটির গেম খুব সহজে খেলতে পারবেন। আমি নিজ ব্যক্তিগতভাবে এই মোবাইলটি ইউজ করেছি এবং এই মোবাইলটি যখন আমি ফ্রি ফায়ার এবং পাবজি দুটি গেমি খেলে দেখেছিলাম।

গেমগুলো খেলার সময় সেটিং এতে এমন কোন পরিবর্তন করতে হয়নি বরঞ্চ আমি আরো হাই কোয়ালিটিতে এই গেমটি খেলেছিলাম এবং কোন প্রকার সমস্যা ছাড়াই গেমগুলো খেলা গিয়েছিল। Walton primo RX8 mini গেমিং মোবাইলটি দিয়ে যদি আপনি দীর্ঘ সময় ধরে গেমিং করে থাকেন তবে তেমন কোন ব্যাটারি গরম হয় না। যদিও যেটুকু গরম হয় সেটি স্বাভাবিক গরম বলা চলে।

Walton primo RX8 min মোবাইলটিতে ব্যাটারি হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে লিথিয়াম পলিমারের ৩৬০০ এম্পিয়ার ব্যাটারী। ফোনটির সবদিক ভালো লাগলো এই একটি দিক আমার কাছে যথেষ্ট খারাপ লেগেছে। কেননা একটি গেমে মোবাইলে পর্যাপ্ত পরিমাণ চার্জের এবং ব্যাটারি ব্যাকআপ এর প্রয়োজন হ।য় সেখানে এত ছোট ব্যাটারি তেমন কোনো ভালো ব্যাকআপ দিতে পারবে না। আপনি এই গেমিং মোবাইলটি যে সর্বোচ্চ তিন ঘণ্টার মতো pubg অথবা অন্যান্য ফ্রি ফায়ার এর মত গেম গুলো খেলতে পারবেন। তবে এর একটি ভালো দিক হলো মোবাইলটির সঙ্গে চার্জার হিসেবে পাচ্ছেন 18 ওয়াটের পাশ চার্জার এক ঘন্টার ভিতরে আপনার মোবাইল থেকে আবারো ফুল চার্জ করে দিবে। Walton primo RX8 mini মোবাইলটির বিল এবং কন্ট্রোলিং ও কোয়ালিটি ডিজাইন অন্যান্য সেটের থেকে আলাদা এবং অনেকটা ইউজার ফ্রেন্ডলি হওয়ায় আমার কাছে বেশ ভালো লেগেছে।ওয়ালটনের এই মোবাইলটিতে ডিসপ্লে হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে ৬.৩ ইঞ্চি আইপিএস টাচ স্কিন ফুল এইচডি ডিসপ্লে বাজারের কথা চিন্তা করলে ডিসপ্লে আমার কাছে ভালো মনে হয়। Walton primo RX8 min গেমিং মোবাইল টিতে ক্যামেরা হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে ১২ মেগা +৮ মেগা +৫ মেগা ব্যাক ক্যামেরা এবং সেলফি ক্যামেরা হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে ১৩ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা। বাজেটের কথা চিন্তা করলে এই ক্যামেরা আমার কাছে মোটামুটি ভালই মনে হয়।  পাশাপাশি যদি আপনি গেম খেলার কথা চিন্তা করেন তবে আপনি কোন প্রকার সমস্যা ছাড়া গেম খেলতে পারবেন। সেই হিসেবে এদিকটা কনসিডার করা হয়েছে। মোবাইলটি আপনি বাংলাদেশের যে কোন ওয়ালটন শোরুম থেকে 4gb রেম এবং ১২৮ জিবি রম এর ভার্সনটি পেয়ে যাচ্ছেন মাত্র ১২৯৯৯ টাকা। আপনার কাছে যদি আমাদের বাজেটের থেকেও কম টাকা থাকে তবে আপনি এই ফোনটি কোন প্রকার সমস্যা ছাড়া কিনতে পারবেন।  ওয়ালটন বর্তমানে সহজ পণ্য বিক্রি করে থাকে। 

Walton Primo RX8 Mini Full Specifications

First ReleaseJune 2021
ColorsBlack
SIMHybrid Dual Nano SIM
StyleMinimal Notch
MaterialGorilla Glass front, glossy glass back, plastic frame
Dimensions158.9 x 75.5 x 8.4 millimeters
Weight178 grams
Size6.3 inches
ResolutionFull HD+ 2340 x 1080 pixels
TechnologyIPS Touchscreen
ProtectionCorning Gorilla Glass
FeaturesMultitouch, 2.5D curved glass
ResolutionTriple 12+8+5 Megapixel
Features
PDAF, LED flash, f/1.8, 1/2.86″, 120º ultrawide, depth, HDR & more
Video RecordingFull HD (1080p), EIS
Resolution13 Megapixel
FeaturesPDAF, f/2.2, HDR & more
Video RecordingFull HD (1080p)
Type and Capacity
Lithium-polymer 3600 mAh (non-removable)


৩. Tecno Spark 7pro

তালিকা তিন নাম্বার আমরা আপনাদের মাঝে যে গেমি মোবাইলে শেয়ার করব সেই গেমি মোবাইলটির নাম হল Tecno Spark 7pro। জনপ্রিয় মোবাইল নির্মাতা টেকনো কোম্পানি বর্তমানে বাংলাদেশের বাজারে একের পর এক অনেক কম দামে ভালো গেমিং মোবাইল নিয়ে এসেছে। তার মধ্যে অন্যতম একটি গেমিং মোবাইল হল tecno এসপার্ক ৭ প্রো। মোবাইলটি দিয়ে আপনি খুব সহজে মিডিয়াম টু হাই সেটিং এ কোন প্রকার সমস্যা ছাড়াই যেকোনো ধরনের অনলাইন ভিত্তিক গেম গুলো খুব সহজে খেলতে পারবেন। আমাদের কমবেশি সবারই জানা আছে যে একটি ভালো গেমিং মোবাইলে সবচেয়ে বড় দিক হলো তার প্রসেসর। ঠিক তেমনি টেকনো কোম্পানি গেমের কথা বিবেচনা করেই মোবাইলটিতে ব্যবহার করেছে মালি জি৫২ এমসি২ প্রসেসর। যার কারণে আপনি যদি দীর্ঘ সময় ধরে মোবাইলটিতে হাই কোয়ালিটিতে গেম খেলেন তারপরও মোবাইলটি তেমন কোন গরম হবে না এবং মোবাইলটিতে রয়েছে চার জিবি রেম তাই চিন্তা করার কোনো কারণই নেই।

টেকনো এস্পার সেভেন প্রো ব্যাটারীতে ব্যবহার করা হয়েছে লিথিয়াম পলিমারের তৈরি ৫০০০ এম্পিয়ার ব্যাটারী যা মোবাইলটিকে মিনিমাম পাঁচ ঘন্টা ব্যাকআপ দিতে সক্ষম। মোবাইল পাবজি এবং ফ্রী ফায়ার আপনি এই মোবাইলটি ব্যবহার করে টানা চার থেকে পাঁচ ঘন্টা কোন সমস্যা ছেড়ে খেলতে পারবেন এবং এতে করে আপনার মোবাইলে ব্যাটারি অথবা আপনার মোবাইলটি সামান্যতম গরম হবে না। এক কথায় বলতে পারি ফোনটির ব্যাটারি ব্যাকআপ আপনাকে অবশ্যই খুশি করতে বাধ্য। ফোনটি চার্জ শেষ হয়ে গেলে আবার যদি দ্রুত ফোনটি চার্জ হয়ে যায় সেজন্য ব্যবহার করা হয়েছে ফোনটির সঙ্গে ১০ ওয়াটের ফাস্ট চার্জার। এ ছাড়া গেমের কথা চিন্তা করে টেকনো কোম্পানি মোবাইলটি কে এমনভাবে বিল্ড ও ডিজাইন করছে যা অনেকটা ইউজার ফ্রেন্ডলি। ফোনটিতে ডিসপ্লে হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে ৬.৬ ইঞ্চি আইপিএস এলএসডি এইচডি প্লাস ৭২০X ১৬০০ ডিসপ্লে। বাজেটের কথা চিন্তা করলে এই ফোনটি আমার কাছে মোটামুটি ভালো লেগেছে।

ফোনটিতে ক্যামেরা হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে 48 মেগা পিক্সেল পিডিএএফ সেকেন্ডারি আননোন ক্যামেরা। সেই সাথে থার্ড আননোন ক্যামেরা ও সেলফি ক্যামেরা হিসেবে ব্যবহার করা ৮MP হয়েছে। আপনি যদি বাজেটের কথা চিন্তা করেন। তবে আমি বলব বাজেট হিসেবে ক্যামেরা আমার কাছে যথেষ্ট ভাল লেগেছে এবং tecno s park7 pro মোবাইলটি সবদিক থেকে যদি আমি বিবেচনা করি তবে সব দিক দিয়ে আমার কাছে ভালো লেগেছে। আপনি যদি ১০ টাকা কম ১৫০০০ টাকা মধ্যে অর্থাৎ ১৪ হাজার ৯৯০ টাকার মধ্যে একটি পারফেক্ট ভালো মানের গেমিং মোবাইল কিনতে চান তবে এই মোবাইলটি বেছে নিতে পারেন। আর আপনি যদি অফিসিয়ালি মোবাইলটি কিনে থাকেন তবে সাথে পেয়ে যাবেন এক বছরের ওয়ারেন্টি এবং সাত দিনের রিপ্লেসমেন্ট গ্যারান্টি।

Tecno Spark 7pro Full Specifications

Announced2021, April 27
StatusAvailable. Released 2021, May 28
Dimensions164.9 x 76.2 x 8.8 mm
BuildGlass front, plastic frame, plastic back
SIMDual SIM (Nano-SIM, dual stand-by)
Size6.6 inches, 105.2 cm2
Resolution720 x 1600 pixels, 20:9 ratio
Chipset
Mediatek MT6769V/CU Helio G80 (12 nm)
CPUOcta-core
GPUMali-G52 MC2
Internal64GB 4GB RAM, 64GB 6GB RAM
Triple48 MP, PDAF
Single8 MP
TypeLi-Po 5000 mAh, non-removable


৪. Infinix hot 10i

Infinix hot 10i Full Specifications

Announced2021, May 20
TypeIPS LCD, 500 nits
OSAndroid 11, XOS 7.5
ChipsetMediatek MT6769V Helio G70
CPUOcta-core
GPUMali-G52 MC2
Dual13 MP, f/1.8, (wide), AF
Single5 MP, (wide)
USBmicroUSB 2.0
TypeLi-Po 6000 mAh, non-removable
Charging18W wired
Colors
Black, Purple, Morandi Green, Heart of Ocean
Models
X659B, PR652B, X658E, PR652C, X658B
Price4/64 14990 tk
16 MP, f/2.5, 26mm

 


৫. Xiaomi realme 9

তালিকার পাঁচ নম্বরে আমরা আপনাদের মাঝে যে গেমিং মোবাইলটি শেয়ার করব তার নাম হলো Xiaomi realme 9। শাওমি সিরিজের পুকু এম ৩ মোবাইলটি ১৫ হাজার টাকা বাজেটের মধ্যে আমার কাছে বেস্ট মনে হয়েছে। কারণ মোবাইলটিতে মিডিয়াম সেটিং এর সকল ধরনের হাই কোয়ালিটির মোবাইল গেম গুলো খুব সহজে কোন প্রকার সমস্যা ছাড়া খেলা যায়। মিডিয়াটেকটি হোলিও জি ৮৫। ১২ ন্যানোমিটারের এই প্রসেসরটি অত্যন্ত শক্তিশালী একটি প্রসেসার এবং এ পদ্ধতি ব্যবহার করার ফলে আপনি যখন দীর্ঘ সময় ধরে মোবাইলটি দিয়ে গেম খেলবেন তখন আপনার মোবাইলটি অতটা গরম হবে না। তবে আমার মনে হয় প্রসেসটি মোবাইলটির সাথে তেমন ভাবে খাপ খাইয়ে নিতে পারেনি কেননা প্রসেসরটি যতটা ভালো হওয়ার কথা ছিল মোবাইলটি তার পুরোটা ব্যবহার করতে পারে না। আশা করা যায় ভবিষ্যতে সফটওয়্যার আপডেট করার ফলে এই সমস্যা কিছুটা হলেও সমাধান পাওয়া যাবে। 

তবে আমি আপনাকে একটা পরামর্শ দিয়ে মোবাইলটি কেনার আগে অবশ্যই আপনি ইন্টারনেটে বিভিন্ন ওয়েবসাইটে গিয়া ভালো কয়েকটি গেমিং রিভিউ দেখে নেবেন তাহলে আপনি মোবাইলটি সম্পর্কে ভালো ধারণা পাবেন। মোবাইলটি যে ডিসপ্লে ব্যবহার করা হয়েছে আইপিএসএলএসডি 6.5 full hd water drop display এবং ডিসপ্লে প্রোটেস্টনে থাকছে গেরিলা গ্লাস থ্রি। পরিচয় হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে স্ন্যাপড্রাগণ 662 ১১ ন্যানোমিটার প্রসেসর।। গ্রাফিক্স প্রসেসের ইউনিট ব্যবহার করার কারণে আপনি শাওমি এম থ্রি মোবাইলের মাধ্যমে যেকোনো ধরনের হাই কোয়ালিটির গেম মিডিয়াম গ্রাফিক্স এ খেলতে পারবেন। 

Xiaomi realme 9 গেমিং মোবাইলটির মূলত দুটি ভার্সন রয়েছে একটি হলো 4gb রেম ৬৪ জিবি রোম এবং অপরটি হল ৪ জিবি রেম ১২৮ জিবি রম। তবে আপনি চাইলে নিজের ইচ্ছা অনুযায়ী মোবাইলটি সর্বোচ্চ ডেডিকেট মাইক্রো এইচডি কার্ড ব্যবহার করতে পারবেন সর্বোচ্চ ২৫৬ জিবি পর্যন্ত। মোবাইলটিতে এন্ড্রয়েড ভার্সন 10 ব্যবহার করা হয়েছে আশা করা যায় আগামী দুই বছর আপনি এই মোবাইলটিতে অপারেটিং সিস্টেম আপডেট পাবেন। ব্যাক ক্যামেরা হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে ৪৫ মেগাপিক্সেল +২ মেগা +দুই মেগাপিক্সেল ব্যাকগ্রাউন্ড ক্যামেরা। 

সেলফি ক্যামেরা হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে 8 মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা দামের কথা বিবেচনা করলে ব্যাক ক্যামেরা এবং সেলফি ক্যামেরা আমার কাছে যথেষ্ট ভালো লেগেছে। শুধু তাই নয় আপনি এই ক্যামেরা ব্যবহার করে ফোরকে রেজুলেশন যেকোনো ধরনের ভিডিও রেকর্ডিং করতে পারবেন। আমি মনে করি এই বাজেটের মধ্যে এই ধরনের মোবাইল যেসব ফিউচার ব্যবহার করেছে তা সত্যি অসাধারণ। সেই সাথে মোবাইলটিতে ব্যাটারি হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে ৬০০০ এম্পিয়ার ব্যাটারী যা আপনাকে ৬ থেকে ৭ ঘন্টা ফুল ব্যাকআপ দেবে। ফাস্ট চার্জিং হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে ১৮ ওয়াটের চা ফাস্ট চার্জার। যার ফলে শাওমির কোম্পানির দাবি অনুযায়ী মাত্র ৪৫ মিনিটে ফোনটি ৫০% চার্জ হয়ে যায়। তাই ব্যাটারি ব্যাকআপ এবং চার্জিং নিয়ে  টেনশন করার কোনো কারণ নেই।

মোবাইলটির ৪ জিবি রেম এবং ৬৪ জিবি রম এর দাম হল ১৪৯৯৯ টাকা

Xiaomi realme 9 Full Specifications

Announced2022, April 07
StatusAvailable. Released 2022, April 12
BuildGlass front (Gorilla Glass 5), plastic frame, plastic back
SIMDual SIM (Nano-SIM, dual stand-by)
TypeSuper AMOLED, 90Hz, 430 nits (typ), 1000 nits (peak)
Size6.4 inches, 98.9 cm2 (~84.2% screen-to-body ratio)
Resolution
1080 x 2400 pixels, 20:9 ratio (~411 ppi density)
ProtectionCorning Gorilla Glass 5
Chipset
Qualcomm SM6225 Snapdragon 680 4G (6 nm)
CPU
Octa-core (4×2.4 GHz Kryo 265 Gold & 4×1.9 GHz Kryo 265 Silver)
GPUAdreno 610
Card slotmicroSDXC (dedicated slot)
Internal128GB 6GB RAM, 128GB 8GB RAM
Triple108 MP, f/1.8, 26mm
Single16 MP, f/2.5, 26mm
TypeLi-Po 5000 mAh, non-removable
Charging
33W wired, 50% in 31 min, 100% in 75 min (advertised)

উপরে আমরা যে কয়টি গেমিং মোবাইল শেয়ার করেছি এর মধ্যে কোন মোবাইলটি আপনার কাছে সবচেয়ে বেশি ভালো লেগেছে কমেন্টের মাধ্যমে আমাদেরকে জানাতে ভুলবেন না।  আর যদি পোস্টটি আপনার কাছে ভালো লেগে থাকে তবে অবশ্যই আপনার বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করবেন। ধন্যবাদ।

আমার বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করব
About The Author
RAFI khan
আমার নাম RAFI khan আমি Bangladeshi Gamer ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আমার গেম খেলার অনুভূতি আপনাদের মাঝে শেয়ার করি। পাশাপাশি নতুন গেমিং মোবাইল ও নতুন গেমিং ল্যাপটপ অথবা গেমিং পিসি বিল্ড সম্পর্কে আমার ভালো ধারনা আছে। আমার ধারণা আমি আপনাদের মাঝে শেয়ার করি।