1. rabbikhansakil@gmail.com : RAFI khan : RAFI khan
  2. riadxnxncom@gmail.com : riadxn riadxn : riadxn riadxn
১০ হাজার টাকার মধ্যে সেরা ৫ গেমিং মোবাইল
১০ হাজার টাকার গেমিং মোবাইল
১০ হাজার টাকার মধ্যে সেরা ৫ গেমিং মোবাইল

আসসালামু আলাইকুম বন্ধুরা আশা করি সবাই ভাল আছেন।  আজ আমি আপনাদের মাঝে শেয়ার করব ১০ হাজার টাকার মধ্যে সেরা ৫ গেমিং মোবাইল। বর্তমানে বাজারে আপনি ১০০০০ টাকার মধ্যে অনেক ধরনের ভালো এন্ড্রয়েড মোবাইল পেয়ে যাবে। তবে ১০ হাজার টাকা বাজেটের মধ্যে আপনি যদি একটি ভালো মানের গেমিং মোবাইল খুঁজে থাকেন তবে সে ক্ষেত্রে আপনাকে একটু কষ্ট করতে হবে। অনেকে আছেন বাজেট কম হওয়ার কারণে ঠিক কি ধরনের মোবাইল কিনলে সকল ধরনের গেম ভালোভাবে খেলতে পারবেন সে সম্পর্কে তেমন কোন ধারণা নাই।

তাদের সুবিধার্থে আজ আমরা আপনাদের মাঝে শেয়ার করব ১০ হাজার টাকা বাজেটের মধ্যে জনপ্রিয় পাঁচটি গেমিং মোবাইল। এই মোবাইলে আপনি পাবজি ফ্রী ফায়ার ও অন্যান্য সকল গেম হাই কোয়ালিটিতে কোন প্রকার সমস্যা ছাড়াই খেলতে পারবেন। প্রত্যেকটি মোবাইলে আমরা ব্যক্তিগতভাবে চালানোর পর এবং এর পারফরমেন্স বিবেচনা করার পর আপনাদের মাঝে শেয়ার করেছি তাই আশা করি মোবাইলগুলো আপনার কাছে ভালো লাগতো। গেমিং মোবাইল গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য এবং কিভাবে আপনি এই মোবাইলগুলো কিনতে পারেন সে সম্পর্কে সকল তথ্য ধারাবাহিকভাবে নিচে তুলে ধরা হয়েছে আপনি চাইলে দেখে নিতে পারেন।


১০ হাজার টাকার মধ্যে সেরা ৫ গেমিং মোবাইল

আজকে আমরা দশ হাজার টাকার মধ্যে সেরা ৫ টি গেমিং মোবাইল শেয়ার করব সেগুলোতে আপনি পাবজি অথবা ফ্রী ফায়ারস ও অন্যান্য যে কোন হাই কোয়ালিটির গেমস ৩০ থেকে ৪০ এফ পিএসে খেলতে পারবেন। শুধুমাত্র pubg আর ফ্রী ফায়ার গেম নয় আপনি চাইলে অন্যান্য সকল হাই কোয়ালিটির গেম যেমন কল অফ ডিউটি ইত্যাদি গেম গুলো হাই গ্রাফিক্সে খেলতে পারবেন। গেম খেলার পাশাপাশি আমরা একটি মোবাইলে যে সকল কাজ করে থাকে যেমন ছোটখাটো ভিডিও এডিটিং এবং ফটো এডিটিং সহ অন্যান্য সকল কাজ আপনি অনায়াসে এই মোবাইলের মাধ্যমে করতে পারবেন।

সেরা ৫ গেমিং মোবাইল

আপনাকে আমরা আগেই বলে রাখছি আমরা আপনাদের মাঝে নিয়ে যেয়ে মোবাইল গুলো শেয়ার করব সেগুলো বাংলাদেশ অফিশিয়ালি মোবাইল।  তবে আপনি চাইলে আনঅফিসিয়াল মোবাইলে কিনতে পারেন বাজার থেকে। তবে আমি মনে করি অফিসিয়াল মোবাইল কিনলে সব থেকে বেশি ভালো হবে কেননা পরবর্তীতে কোন সমস্যা দেখা দিলে আপনি খুব সহজেই আপনার মোবাইলটি সার্ভিসিং করিয়ে নিতে পারবেন। তাহলে চলে দেরি না করে দেখে নেয়া যাক মোবাইল গুলো  কেমন।


সেরা ৫ গেমিং মোবাইল

যারা 10 হাজার টাকার ভিতরে স্মার্টফোন করছেন অলরাউন্ডারের 4gb পেয়ে যাবে পেয়ে যাবেন। তাদের জন্য আমি আজকে এমন পাঁচটি স্মার্টফোন নিয়ে কথা বলব। যে শূন্যতা বাংলাদেশ খুব কম লোকই বলে এবং বর্তমান তাপমাত্রা কত দেখেছি। স্যাটেলাইট y21 আপনি কি শুনতে পাচ্ছেন কিন্তু বলতে কিন্তু বর্তমানে স্মার্টফোন 5000 টাকার ভিতরে ওয়ালটন নিয়ে আসছে স্মার্টফোন । স্পেসিফিকেশন সম্পর্কে জানলে আপনি অবাক হয়ে যাবেন। কীভাবে সাড়ে আট হাজার টাকায় স্মার্টফোন আনা যায় স্মার্ট লেন্স প্রিস 9000 ক্যামেরা 5 মেগাপিক্সেল।.

স্মার্টফোন পেয়ে যাবেন যেটা কিনা ভারতের হাজার টাকা স্মার্টফোনে ব্যবহার করা হয় আর আপনি একটা সাড়ে আট হাজার টাকায়। বাংলাদেশ ওয়ালটন নিয়ে আসছে। আপনার টা একটু চেক আউট করতে পারেন।

 তালিকার চার নাম্বার থেকে স্মার্টফোনটি হলো আইটেল ফোরজি স্মার্টফোন বাংলাদেশ 9990 টাকায় 3 জিবি 32 পেয়ে যাবেন 9990 টাকা  পেয়ে যাবেন 5 মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা। যারা নিয়মিত ছবি তুলতে  ভালোবাসেন তারা চাইলে এই সেটটি ব্যবহার করতে পারেন.

সিম্ফোনি ইনোভা টেন এ স্মার্টফোনটি দেখতে অনেক সুন্দর।. পিছনের গ্লাস দেওয়া হয়েছে।. আমার ডিটেলস 9999 টাকায় 4 জিবি ভার্সন স্মার্ট 25.20 5322 মডেল চার্জার type-c ।.তাদের প্রতি সেকেন্ডে মিডিয়াটেক হেলিও g35।

উপরে আমরা আপনাদের মাঝে একটি ভিডিও শেয়ার করেছি এবং সেখানে এ সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করেছে আশা করি আপনাদের পুরো বিষয়টি বুঝতে সুবিধা হবে এবং আপনারা বুঝতে পেরেছেন। দেখেন আমরা সবাই যারা কমবেশি গেম খেলতে পছন্দ করি এবং মোবাইল গেমার যারা তাদের মূল উদ্দেশ্য থাকে কম দামের ভিতরে একটি ভালো মানের গেমিং মোবাইল কেনার জন্য। 

আর গেমিং মোবাইল বলতে বুঝে ভালো মানের এবং ভালো কোয়ালিটি ফুল একটি গেমিং মোবাইল। যেটির রেম মিনিমাম তিন থেকে চার জিবি এবং স্টোরিস ৩২ জিবি প্লাস ও আরো নানা রকম ফিউচার যেমন ভালো মানের প্রসেসর ও গ্রাফিক্স কোয়ালিটি ভালো হতে হবে। তবে আপনি যদি ভালো কোন ব্র্যান্ডের মোবাইল ফোনে এসব চাহিদা নিয়ে একটি ফোন কিনতে যান তবে আপনাকে মিনিমাম ২৫ হাজার টাকা প্লাস বাজেট করতে হবে। কিন্তু আপনি যদি একটু লো ব্র্যান্ডের কোন কোম্পানির কাছ থেকে এসব ফোন কেনেন তবে আপনার বাজেটের মধ্যে আপনি সকল গেমিং মোবাইল পেয়ে যাবেন।

তবে একেবারে যে থার্ড ক্লাস কোম্পানির কাছ থেকে আপনাকে ফোন কিনতে বলছি তা না বর্তমানে অনেক ভালো ব্র্যান্ড রয়েছে যারা শুধুমাত্র গেমিং মোবাইল তৈরি করে। আর সেখান থেকে আপনার পছন্দ অনুযায়ী এসব গেমের মোবাইল গুলো কিনে নিতে পারেন।

Realme C3

১০ হাজার টাকা বাজেটের মধ্যে আপনি যদি গেমিং মোবাইল খুজে থাকেন তবে আপনি চাইলে Realme C3 ফোনটি বেছে নিতে পারেন। ফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে সাইরাইজ ডিজাইন। এর আগে realme 5i সেটটিতে এই ধরনের ডিজাইন ব্যবহার করা হয়েছিল। বর্তমানে বাজারে ealme C3 ফোনটি দুটি রঙে বাজারে পেয়ে যাবেন। ফোনটির নির্মাতা কোম্পানি মূলত দুটি রঙে এই ফোনটি বাজারে নিয়েছে একটি হল লাল অপরটির নীল। ফোনটির পিছনে একটি বিশেষ ধরনের টেক্সচার ব্যবহার করা হয়েছে যার কোন ফোনটি আরো আকর্ষণীয় হয়ে উঠেছে এবং ডিসপ্লে হিসেবে রয়েছে ৬.৫ ইঞ্চি ডিসপ্লে।

ডিসপ্লে ঠিক উপরে রয়েছে ভিউ ড্রপ নছ এবং ফোনের পেছনে রয়েছে প্লাস্টিক ফিনিশ ও ডান ও বামদিকে রয়েছে পাওয়ার বাটন এবং ভলিউম বাটন। মোবাইলটা সম্পূর্ণ ডিজাইন আমার কাছে যথেষ্ট ভালো লেগেছে এবং আশা করি এই ডিজাইনটি আপনাদের কাছেও যথেষ্ট ভালো লাগবে। ডিজাইনটি মূলত মোটামুটি ইউজার ফ্রেন্ডলি  এবং ডিসপ্লে আমার কাছে ভালো লেগেছে।

১০ হাজার টাকার গেম এর মোবাইল realme c3 সম্পূর্ণ নতুন ধরনের চিপসেট ব্যবহার করা হয়েছে। ফোনটিতে চিপসেট হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে মিডিয়ার টেক হেলিও জি৭০। এন টু টু এর রিপোর্ট অনুযায়ী বেঞ্চমার্কিংয়ে নতুন এই ফোনটির স্কোর হল ১৯২,১৮৭। আশ্চর্যজনক বিষয় হলো এই জরিপে পারফরম্যান্স বিবেচনা samsung galaxy a51 opo f15 এর কাছাকাছি চলে এসেছে ফোনটি । ফোনটির গীগবাংস টেস্টের সিঙ্গেল কোর টেস্টে স্কোর হল ৩৫৪ এবং মাল্টি কোর টেস্টে এর স্কোর হলো ১২৬০। 

এর ফলে আপনি চাইলে ডিফল্ট অন করে খুব সহজে পাবজি মোবাইল গেম খেলতে পারবেন।  যদিও এই গেম খেলার সময় আমাদের কাছে মনে হচ্ছে যে মোবাইলটি ফ্রেম কিছু সময় পর পর ড্রপ করছে। তবে যদি আপনি হাইগ্রাফিক্স এ পাবজি মোবাইল গেম খেলেন তবে 15 মিনিট পরে এই মোবাইলটি আগুনের মতো গরম হয়ে যাবে তাই চেষ্টা করবেন গ্রাফিক্স  কোয়ালিটি একটু লো করে খেলার। এখন আপনি যদি আমাকে জিজ্ঞেস করেন তো আমি বলব ১০ হাজার টাকা বাজেটের মধ্যে আপনি এর থেকে ভালো গেমিং মোবাইল আমার জানামতে আর পাবেন না। এই মোবাইলটি আপনার কাছে একটি বেস্ট অপশন হতে পারে গেমিং এর জন্য।

realme ফোন গুলা আপনি যেকোনো মোবাইলের শোরুমে পেয়ে যাবেন। তবে আমাদের জানামতে অফিশিয়ালি ভাবে রিয়েলমি c3 ফোন বাংলাদেশের কোন জেলা থেকে সংগ্রহ করা যায় না। তারপর ফোনটি সম্পর্কে যদি আপনার কোন সমস্যা অথবা প্রশ্ন থেকে থাকে তবে অবশ্যই কমেন্টের মাধ্যমে আমাদেরকে জানাবেন আমরা দ্রুত আপনাকে উত্তর দেব। এবার চলুন জেনে নেওয়া যাক জনপ্রিয় এই গেমিং মোবাইলটির সম্পূর্ণ টেকনিক্যাল ক্যালেন্ডার ফিচার।

Realme C3 full specification

StatusAvailable. Released 2020, February 14
Dimensions164.4 x 75 x 9 mm (6.47 x 2.95 x 0.35 in)
Weight195 g (6.88 oz)
BuildGlass front (Gorilla Glass 3), plastic back, plastic frame
SIMDual SIM (Nano-SIM, dual stand-by)
TypeIPS LCD, 480 nits (typ)
Size
6.5 inches, 102.0 cm2 (~82.7% screen-to-body ratio)
Resolution
720 x 1600 pixels, 20:9 ratio (~270 ppi density)
ProtectionCorning Gorilla Glass 3
OSAndroid 10, Realme UI
ChipsetMediatek Helio G70 (12 nm)
CPU
Octa-core (2×2.0 GHz Cortex-A75 & 6×1.7 GHz Cortex-A55)
GPUMali-G52 2EEMC2
Internal
32GB 2GB RAM, 32GB 3GB RAM, 64GB 3GB RAM, 64GB 4GB RAM
Dual
12 MP, f/1.8, 28mm (wide), 1/2.8″, 1.25µm, PDAF
2 MP, f/2.4, (depth)
FeaturesLED flash, HDR, panorama
Video1080p@30fps
Single5 MP, f/2.4, 27mm (wide), 1/5″, 1.12µm
FeaturesHDR, panorama
Video1080p@30fps
TypeLi-Po 5000 mAh, non-removable
Charging10W wired

গেমিং মোবাইলটির বর্তমান বাজার মূল্য ১০৯৯০ টাকা। ৩ জিবি রেম, ৩২ জিবি রম।

মোবাইল কেনার সময় আপনি যদি ক্যামেরা, মেমোরি, স্ক্রিন, এবং র‍্যাম সহ android version ইত্যাদি বিবেচনা করেন তবে আমি মনে করি ১০ হাজার টাকার ভিতরে এই গেমিং মোবাইলটি আপনার জন্য বেস্ট অপশন হতে পারে। আপনার বাজেট যদি ১০ হাজার টাকার মধ্যে হয়ে থাকে তবে আপনি উপরে থাকা গেমিন মোবাইলটি দেখতে পারেন আমার বিশ্বাস আপনি মোবাইলটি চালিয়ে ভালো লাগবে। 

একটা কথা আমি আগে বলে রাখি একটি মোবাইলের দাম সব সময় এক রকম থাকে না।  সময়ের সাথে সাথে মোবাইলের দাম কমতেও পারে আবার বাড়তেও পারে।   তবে আমরা সবসময় আপনাকে আপডেট নিউজ শেয়ার করার চেষ্টা করব। আমরা সব সময় চেষ্টা করব গেমিং মোবাইলের সঠিক দাম এবং সঠিক ইনফরমেশন ও সেটটি বাজারে পাওয়া যাবে কিনা সে সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানানোব।   তারপরও যদি কোন সমস্যা থেকে থাকে তবে কমেন্টের মাধ্যমে আমাদেরকে জানাবেন আমরা তা সমাধান করার চেষ্টা করব। এছাড়া সময়ের সাথে সাথে পোস্টটি প্রতিনিয়ত আপডেট করা হবে এবং এখানে আরো নতুন নতুন স্মার্ট ফোন যুক্ত করা হবে যেগুলোর বাজেট ১০ হাজার টাকার মধ্যে। 

আর্টিকেলটিতে যদি কোন ভুল ত্রুটি হয়ে থাকে তবে অবশ্যই ক্ষমার নজরে দেখবেন এবং আর্টিকেলটি যদি ভালো লেগে থাকে তবে বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করবেন।  আর্টিকেলটি আপনার কাছে কেমন লেগেছে কমেন্টের মাধ্যমে জানাবেন। আমরা আপনাদের মাঝে যে মোবাইল ফোনগুলো শেয়ার করবো সেগুলো আপনি বাংলাদেশের যেকোনো বাজারে অফিশিয়াল অফিসার কিনতে পাবেন। প্রত্যেকটি মোবাইল ফোনের সাথে আপনি এক বছরের ওয়ারেন্টি পেয়ে যাবেন। 

১০ হাজার টাকার গেমিং মোবাইল গুলো আপনার কাছে কেমন লেগেছে তা অবশ্যই আমাকে জানাতে ভুলবেন না।  মোবাইল গুলো রিভিউ করার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। এই ধরনের আরো নতুন নতুন পোস্ট পেতে আমাদের ওয়েবসাইটে সাবস্ক্রাইব করে রাখুন এবং আপনি ইতিমধ্যে আমাদের ওয়েবসাইটি সাবস্ক্রাইব করে থাকেন তবে আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

আমার বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করব
About The Author
RAFI khan
আমার নাম RAFI khan আমি Bangladeshi Gamer ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আমার গেম খেলার অনুভূতি আপনাদের মাঝে শেয়ার করি। পাশাপাশি নতুন গেমিং মোবাইল ও নতুন গেমিং ল্যাপটপ অথবা গেমিং পিসি বিল্ড সম্পর্কে আমার ভালো ধারনা আছে। আমার ধারণা আমি আপনাদের মাঝে শেয়ার করি।